জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিনস্ত সকল কলেজে অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস নেয়ার নির্দেশনা

শিক্ষা বিডিঃ বর্তমানে সারা বিশ্বে করোনা সংকট সকল শিক্ষা কার্যক্রমে প্রায় বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় তার বেতিক্রম নয়। অনেকদিন যাবৎ শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নিজেদের উদ্যোগে অলাইনে ক্লাস নেয়া শুরু করে। সেই দারাবাহিকতায় এবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিনস্ত সকল কলেজে অনলাইনের মাধ্যমে তাদের ক্লাস চালুর তাগিদ দিয়েছেন প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ। করোনা সংকটের মাঝে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও যেনো  ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা বন্ধ না করে অনলাইনে ক্লাস নেয়ার নির্দেশ নিয়েছেন।

আজ ১৮ জুলাই ২০২০ রোজ শনিবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর ২২ তম বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ এই নির্দেশনা দিয়েছেন।  তিনি বলেছেন, আজ করোনা দূর্য্যোগ বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এই করোনা মহামারী  প্রাণ কেড়ে নিয়েছে লক্ষাধিক মানুষের। এটি বর্তমানে মানব জাতির অস্তিত্বের প্রতিই বিরাট এক হুমকিস্বরূপ। তারপরও আমরা হাত গুটিয়ে বসে থাকতে পারি না। এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা আমাদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ আরো বলেন, করোনার এ বিশেষ পরিস্থিতিতে প্রত্যেককের নিজ নিজ অবস্থান থেকে নিজস্ব দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনে করতে হবে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা যেন মানবিক হই। প্রত্যেকের পাশে দাঁড়াই। এই পরিস্থিতি যত প্রতিকূলেই হোক মানুষের জীবন কখনো থেমে থাকতে পারে না। এরই মধ্যে যেসকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনলাইনে পাঠদান শুরু করেছে এবং এটি চালিয়ে যাচ্ছে তাদেরকে তিনি অভিনন্দন জানিয়েছেন।  তিনি আরো বলেন, আমরা বেশ কতগুলো কলেজকে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি দ্বারা সজ্জিত করে তোলব। এই দূর্য্যোগের অবসান হলেও যেনো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্য ও প্রযুক্তির মাধ্যমে পাঠদান অব্যাহত রাখতে পারে। সেইদিকে লক্ষ রেখেই আমরা তথ্য ও প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে পদক্ষেপ গহণ করছি যাতে এরপরেও  স্বাভাবিক সময়ে এটি চলমান থাকে।

উক্ত অধিবেশনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর নোমান উর-রশীদ ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য রাজস্ব ও উন্নয়নসহ মোট ৫৫৬ কোটি ৯৯ লাখ ৮৩ হাজার টাকার বাজেট পেশ করেন। যাহা সিনেট কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে। অধিবেশনে বার্ষিক বাজেট, বার্ষিক প্রতিবেদন, গত অধিবেশনের কার্যবিবরণী, নতুন দপ্তর ও পদ সৃষ্টি অনুমোদন হয়। এ অধিবেশনে আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ফরাস উদ্দিন আহমদ সহ আরো গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

Be the first to comment

Leave a Reply